শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতি পূরণ করে যে খাবার

শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতি পূরণ করে যে খাবার

 

করোনাভাইরাস(Corona virus) মহামারিতে বিধ্বস্ত গোটা বিশ্ব। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের করোনা পরিস্থিতি দিন দিন অনেক বেশি খারাপের দিকে যাচ্ছে। আমাদের দেশেও থেমে নেই আক্রান্ত ও মৃত্যুর মিছিল। এর থেকে বাঁচতে সতর্কতা এখনই জরুরি।

 

ভারতে পর্যাপ্ত অক্সিজেনের(Oxygen) অভাবে প্রাণ হারাচ্ছেন হাজারো মানুষ। তাইতো আমাদের উচিত আগে থেকেই এই মহামারি থেকে বাঁচার প্রস্তুতি নেয়া। এই কঠিন সময়ে আমাদের সবারই জানা প্রয়োজন কীভাবে শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বৃদ্ধি করা যায়। কারণ করোনা সরাসরি ফুসফুসকে(Lungs) আক্রান্ত করে। ফলে শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা যায়।

 

আমাদের শরীরে যদি পরিমাণমতো অক্সিজেনের জোগান না থাকে, তাহলে আমরা অসুস্থ হতে বাধ্য। কাজেই এই কঠিন সময়ে সুস্থ(Healthy) থাকতে আমাদের অক্সিজেন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া প্রয়োজন। শরীরে প্রতিনিয়ত বাতাসের সঙ্গে যত দূষণ ঢোকে, খাবারের মাধ্যমেও কিন্তু তততাই দূষণ আমাদের শরীরে ঢুকে যায়। কাজেই আমরা কী খাচ্ছি তা দেখে নেয়া খুব জরুরি।

 

গ্রিন টিঃ

গ্রিন টি আমাদের শরীরে মেটাবলিজমের মাত্রা সঠিক করতে সাহায্য করে। ফলে শরীরে অক্সিজেনের অভাব তো হয় না, উপরন্তু শরীরের বাড়তি মেদ কমে ও শরীর ঝরঝরে লাগে।

 

বাদামঃ

প্রতিদিনের খাবারে একমুঠো বাদাম যোগ করা উচিত। তেলেভাজা বা প্রসেস করা খাবার না খেয়ে সন্ধ্যায় খিদে পেলে কয়েকটা বাদাম বা কাজু-কিশমিশ খাওয়া যেতে পারে। এতে শরীরে পুষ্টিও হবে এবং একইসঙ্গে অ্যালকালাইন ও অক্সিজেনের মাত্রা বাড়বে।

 

অঙ্কুরিত ডাল বা কাঁচা ছোলাঃ

অঙ্কুরিত ডাল বা কাঁচা ছোলা খাওয়া শরীরের পক্ষে খুবই ভালো। যেহেতু এতে প্রচুর ফাইবার রয়েছে কাজেই ভেতর থেকে শরীর সুস্থ রাখতে অঙ্কুরিত ছোলা সাহায্য করে। এছাড়াও টক্সিন বের করতে সাহায্য করে এবং শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতি পূরণ করতেও সাহায্য করে।

 

টক দইঃ

টক দই খেলে পেটের সমস্যা থাকলে তা নিরাময় করতে সাহায্য করে। প্রতিদিন খাবারে(Food) একবাটি টক দই খেলে শরীরে যথেষ্ট পরিমাণে অক্সিজেনও পৌঁছায়।

 

ব্রোকলিঃ

অন্যান্য সবজির মতো এতেও প্রচুর অক্সিজেন রয়েছে। ব্রোকলি বাড়তি ওজন কমাতেও সাহায্য করে।

 

রসুনঃ

সকালে উঠে খালি পেটে এক কোয়া কাঁচা রসুন(Garlic) খাওয়ার পরামর্শ অনেকেই দেন। এতে শরীরে যথেষ্ট পরিমাণে অক্সিজেনের জোগান থাকে এবং শরীর সুস্থ থাকে।

 

মিষ্টি আলুঃ

নিয়মিত মিষ্টি আলু খেলে শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমে, বাড়তি ওজন(Weight)ও কমে। মিষ্টি আলু নানা প্রাকৃতিক খনিজে ভরপুর। এছাড়া এতে প্রচুর পরিমাণে অক্সিজেনও রয়েছে যা আমাদের শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতিপূরণ করতে সাহায্য করে।

 

পালংশাকঃ

পালংশাকে আয়রনের মাত্রা অনেক বেশি। ফলে যাদের শরীরে(Body) আয়রন কম এবং যারা রক্তাল্পতায় ভোগেন তাদেরকে পালংশাক খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। তবে পালংশাকে অক্সিজেনও প্রচুর পরিমাণে রয়েছে।

Good Study