ঘুম থেকে উঠেই যে কাজগুলো করা উচিত না

সকালে আড়মোড়া ভেঙে এক কাপ চা হাতে সকালের মিষ্টি রোদে বসে পত্রিকা পড়ার যে আনন্দ সেটা নিশ্চয়ই আর অন্য কোনো কিছুতে নেই। কিন্তু কেউ কেউ আছেন যারা সকালে ঘুম থেকে উঠেই এমন কিছু নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন যেটা কিনা তার জন্য মোটেও উপকারি নয়। ফলে নিজের অজান্তেই নিজের ক্ষতি করে বসেন।

সকালে যেগুলো করা মোটেও ঠিক নয়-

 

তন্দ্রাভাব:

 

অনেকেই সকালে ঘুম থেকে উঠে খানিকক্ষণ ঝিমায়। কিন্তু এর ফলে মস্তিস্ক পুনরায় সেই ঘুমের চক্রে নিয়ে যায়। ফলে শরীরে গভীর ঘুমের অনেকটাই প্রভাব চলে আসে। আর সকালের ঝিমুনির কারণে সারাদিন অনেকটাই শরীর টালমাটাল মনে হয়। তাই অ্যালার্ম শোনার সঙ্গে সঙ্গে যত কষ্টই হোক ঘুম থেকে উঠে পড়া উচিত। ঘুম ভাঙার পর আবার একটু ঝিমানো বাদ দিতে হবে।

সকালে উঠেই কফি নয়:

 

আমাদের শরীরের কর্টিসল নামের এক ধরনের হরমোনের উৎপাদন হয় দেখেই আমরা ঘুম থেকে উঠে পরি। কিন্তু কফি এই কর্টিসল উৎপাদনে বাধার সৃষ্টি করে এবং এর ফলে একটা সময় দেখা যায় ক্যাফেইনের প্রতি শরীর আরো বেশি আসক্ত হয়ে পড়ে এবং শরীর স্বাভাবিকভাবে কর্টিসল তৈরি করতে পারে না। তাই অন্তত সকাল ১০টার আগে মোটেও কফি নয়।

ইমেইল চেকও নয়:

 

সকালে উঠেই ইমেইলে চোখ বুলানোর অর্থ হলো আমি কাল কি কি মিস করলাম সেই ফ্রেমে ফেলে দিনটাকে সাজানো। এভাবেই প্রযুক্তি আমাদের স্বাভাবিক জীবনকে বাধাগ্রস্থ করে বলে মন্তব্য গবেষকদের। এভাবে একটি নেতিবাচক ভয় দিয়ে দিন শুরু করা মোটেও কোনো ভালো কাজ নয়। তাই ইমেইল সকালে উঠেই চেক করা উচিত নয়।

অপ্রয়োজনীয় কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে না:

 

ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ প্রতিদিন একই ধরনের টি-শার্ট পরেন। তার মতে এতে করে দৈনন্দিন সিদ্ধান্ত নেয়ার তালিকা থেকে অন্তত একটা বিষয়তো কমলো। পোশাক নির্বাচনে যে বাড়তি সময়টা নষ্ট হয় সেই এনার্জিটুকু তিনি অন্য কাজে ব্যয় করতে বেশি আগ্রহী। সকালের সময়টা বাঁচাতে আগের দিনই পোশাক ঠিক করে রাখা উচিত।

অন্ধকারে সকালটা কাটানো উচিত না:

 

শরীরের ঘড়িটা কিন্তু আলোর সঙ্গে তাল মিলিয়েই ঘোরে। আলোর উপর শরীরে মেলাটোনিন হরমোন নি:সরণ নির্ভর করে। এই হরমোনই শরীরকে বলে, কখন ঘুমানোর সময় এবং কখন জেগে উঠার। আলো বেশি থাকে বলেই কিন্তু গরমকালে জেগে উঠা সহজ হয়। সকালটা তাই উজ্জ্বল আলোতে কাটানো উচিত। শরীরেরও পুরোপুরি জেগে উঠার কাজটা সহজ হবে।

সকাল বেলাটা বিছানায় কাটানো উচিত না:

 

সকাল বেলাটা বিছানায় গড়াগড়ি করতে অনেকেই পছন্দ করেন। ঘুম থেকে উঠলে একটু ব্যায়ামের অভ্যাস কিন্তু খারাপ না। এতে শরীরও খুব ভালো থাকে। দিনের অন্য সময়ে ব্যায়ামের থেকে সকালের নাস্তার আগের ব্যায়াম বেশি উপকারি। এই ব্যায়াম আরো বেশি ফ্যাট কমাতে সাহায্য করে।

সকালের দিকের অভ্যাসগুলো বদলালেই বদলে যাবে দিন। আর ধীরে ধীরে বদলে যাবে জীবনটাও।

আরো দেখুন—

  1. ঘরের মাধ্যমে দ্রুত শরীরের মেদ কমানোর সহজ উপায়
  2. যেসব ক্ষতি হতে পারে খাওয়ার পরপরই দাঁত ব্রাশ করলে
  3. দুশ্চিন্তামুক্ত রাতে ঘুমনোর সহজ উপায় জেনে নিন
  4. Gaibandha Sundarban Courier Service All office & Addresses